Breaking News
Home / আইন ও আদালত / বাকেরগঞ্জে জমি নিয়ে বিরোধ বিএনপি- জমায়েত সন্ত্রাস বাহিনীর হামলায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্পাদক রাজ্জাক আহত

বাকেরগঞ্জে জমি নিয়ে বিরোধ বিএনপি- জমায়েত সন্ত্রাস বাহিনীর হামলায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্পাদক রাজ্জাক আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক : বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১২ নং- রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে বিরঙ্গল গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধ বিএনপি- জমায়েত সন্ত্রাস বাহিনীর হামলা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক আহত।বিগত ০২/০৬/২০২১ইং রোজঃ বুধবার, দুপুর আনুমানিক ২.২৫ মিনিটের সময়, রাজ্জাক হাওলাদারের বসত ঘরের সামনে রাস্তার উপরে হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত ও স্বজনদের সূত্রে জানা যায় , লাকার বাসিন্দা মৃত হামদু হাওলাদারের পুত্র , বিএনপি-জামায়াতের সাবেক ইউপি সদস্য ডাঃ ইউনুস হাওলাদার এর নেতৃত্বে মোঃ কাওসার হাওলাদার (৩৫)। ৩. আব্দুল সালাম হাওলাদার (৪০)। ৪. মোঃ কালাম হাওলাদার (৫৫), উভয়ের পিতাঃ ওহাব হাওলাদার। ৫. মাহফুজ হাওলাদার (৩২)। ৬. লিটন হাওলাদার (৩৮), উভয়ের ডাঃ ইউনুস হাওলাদার। ৭. মোঃ সবুজ হাওলাদার (৪০)। ৮. সাগর হাওলাদার, উভয়ের পিতাঃ সুলতান হাওলাদার।

৯. সুলতান হাওলাদার (৫৫), পিতাঃ মৃত হামদু হাওলাদার ১৫/১৬ জন অজ্ঞাত সন্ত্রাস বাহিনীরা মিলে ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাককে হত্যার উদ্দেশ্যে পুলিশের সামনে হামলা চালায়। সূত্রে জানা যায়, সন্ত্রাশী ও ভূমিদস্যু
প্রকৃতির কতেক সন্ত্রাস বাহিনী বিরুদ্ধে হত্যামামলা চলমান রয়েছে।

অপরদিকে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাকের পুত্র রাসেল হাওলাদার গণমাধ্যমকে বলেন, ৫ ও ৬ সহ কতেক সন্ত্রাস বাহিনীরা কিছু দিন আমার জমিজমা জোরপূর্বক বেদখল করার পায়তারা করিয়া আসিতেছিল। তাহাতে আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে ঘটনার দিন ছিল ০১/০৬/২০২১ইং মোকাম বরিশাল বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ফৌ: কা: বি আইনের ১৪৪/১৪৫ ধারামতে একখানা মামলা দায়ের করে। যাহার মামলা নং- ১০৭/২১ (বাকেরগঞ্জ)। বিজ্ঞ আদালত উক্ত মামলায় শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য অফিসার ইনচার্জ বাকেরগঞ্জ থানাকে নির্দেশ প্রদান করেন। তিনি বাকেরগঞ্জ থানার জনৈক এ এস আই শফিকুল ইসলামকে নির্দেশনা প্রদান করলে রাজ্জাককে নিয়ে বিগত ইং ০২/০৬/২০২১ইং বুধবার আনুমানিক ২টা ২৫ মিনিটের সময় তাকেসহ ঘটনাস্থলে গেলে সন্ত্রাস বাহিনীরা তাহাদের পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী রামদা, লোহার রড, হাতুর ও গাবের লাঠিসহ ইউনূসের সন্ত্রাসী বাহিনীরা হামলা চালায় ঘটনাস্থন বাকেরগঞ্জ থানার বিরঙ্গল সাকিন রাজ্জাক হাওলাদার এর বসত ঘর এর সামনে কাচাঁ রাস্তার উপরে উপস্থিত হইয়া ভিকটিম রাজ্জাককে এলোপাতারি মারদর শুরু করে। একপর্যায়ে অনুমান দুপুর ২.৩০ মিনিটের সময় কতেক স্বাক্ষীর সম্মুখে ১নং সন্ত্রাস বাহিনী খুন করার উদ্দেশ্যে তাহার হাতে থাকা রামদা ধারা আমার বাবার মাথা লক্ষ্য করিয়া কোপ দিলে উক্ত কোপ আমার পিতার মাথার পিছনে তালুতে লাগিয়া গুরুতর হাড়কাটা রক্তাক্ত জখম হয়।

২নংসন্ত্রাস বাহিনী খুন করার উদ্দেশ্যে তাহার হাতে থাকা রামদা দ্বারা আমার পিতার মাথার পিছনে কোপ দিয়া গুরুতর হাড়কাটা রক্তাক্ত জখম করে। ৩নং সন্ত্রাস বাহিনী রামদা দ্বারা হত্যার উদ্দেশ্যে আমার পিতার মাথা লক্ষ্য করিয়া কোপ দিলে তা কপালের ডান পাশের্^ লাগিয়া গুরুতর হাড়কাটা জখম হয়। মাথায় ৪ ও ৩ টি এবং কপালে ৩টি সেলাই লাগে। তাছাড়া ৬ ও ৭ নং সন্ত্রাস বাহিনী আমার পিতার যথাক্রমে ডান বাম বুকের পাজরে লোহার রড দ্বারা আঘাত করিয়া নীলা ফুলা জখম করে। ৮নং আসামী গাবের লাঠি দ্বারা বাবার বাম পায়ে হাটুর নিচে মারাত্মক নীলা ফুলা কখম করে।

তাহাতে আমি বাধা প্রদান করিলে ৪নং সন্ত্রাস বাহিনী তাহার হাতে থাকা লোহার রড দ্বারা খুন করার উদ্দেশ্যে আমার মাথা লক্ষ্য করিয়া বাড়ি মারিলে আমি তাহা ঠেকাইতে গেলে আমার বামহাতের মধ্যমা আঙ্গুল ভাঙ্গিয়া যায়, অপর একট আঙ্গুল মারাত্মক জখম হয়। ৫নং সন্ত্রাস বাহিনী তাহার হাতে থাকা লোহার রড দ্বারা বাড়ি দিয়া আমার পিটের বামপাশের্^ গুরুতর জখম করে। ৯ ও ১০ সন্ত্রাস বাহিনীসহ অজ্ঞতনামা সন্ত্রাস বাহিনী আমাকে, আমার বাবাকেও কতেক সাক্ষিকে এলোপাতারি কিল, ঘুষি, লাথি মারিয়া খুন জখমের ভয়ভীতি দেখাইয়া ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরবর্তীতে কতেক সাক্ষীদের সহযোগিতায় আমি ও আমার পিতা বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সার্জরী ওয়ার্ডে ভর্তি হয়। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়,বর্তমানে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি আছে।

তবে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিএনপি-জামায়াতের নেতা সাবেক ইউপি সদস্য ইউনুস হাওলাদার ও তার সন্ত্রাস বাহিনী দিনের পর দিন গ্রামে একের পর এক অপকর্ম করে বেড়াচ্ছেন তার বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা একাধিক হত্যা মামলা চলমান আছে। তার পরেও প্রকাশ্য দিবালোকে দিন দুপুরে প্রশাসনের সামনে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাককে উপায় অমানুষিক হামলা চালায় হত্যার উদ্দেশ্যে।এভাবে বিএনপি জামায়াতের নেতা সাবেক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ আছেন। দিনের পর দিন প্রশাসনের চোখে ফাঁকি দিয়ে গ্রামে প্রতিরাতে জুয়ার আসর বসিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে খুন কোন জখম করে টাকার বিনিময় মামলা ধামাচাপা দেওয়া চেষ্টা করেন এবং হত্যা মামলার বাদীকে বিয়ে করে ঘর সংসার করেন তার ভয়ে কেউ মুখ খোলার সাহস পাচ্ছে না। যদি কেউ মুখ খোলে তাদেরকে খুন জখম ও হত্যার হুমকি দিয়ে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি করেন , গ্রামবাসী বলে বিএনপি জামায়াত নেতা সাবেক ইউপি সদস্য ইউনূসের খুটির জোর কোথায়।

এদিকে বাকেরগঞ্জ থানা কর্তব্যরত এএসআই শফিকুল ইসলাম জানান, আমি বিজ্ঞ আদালতের নিষেধাজ্ঞা ও অফিসার ইনচার্জ স্যারের নির্দেশে ঘটনাস্থলে মামলার বাদীকে নিয়ে গেলে সাবেক ইউপি সদস্য ইউনূসের এর নেতৃত্বে ১৫/১৬ জন সন্ত্রাসী বাহিনী মিলে মামলার বাদীকে সহ আমাদের উপরে হামলা চালায়। অল্পেতে আল্লাহর রহমতে আমাদের প্রাণ রক্ষা পায় তবে মামলার বাদীকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে বলে গণমাধ্যমকে জানান তিনি।

সূত্রে আহত স্বজনরা জানান সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিষয়টি বাকেরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সাথে জানতে চাইলে তিনি বলেন ঘটনা শুনেছি এজাহার নিয়ে আসামিদের গ্রেফতারের প্রস্তুতি চলছে তবে বিষয়টি খুবই দুঃখজনক প্রকাশ করেছেন তিনি।

চলবে বিস্তারিত আগামী পর্বে আসবে এবার বিএনপি- জামায়াত নেতা সাবেক ইউপি সদস্য খুটির জোর কোথায় ধারাবাহিক পর্ব চলবে..

Check Also

‘প্রজেক্ট হিলশা’র শৌচালয় ব্যবহার করে হাত ধোয় না কর্মচারীরা, ময়লা ফেলে রাস্তায় : এমন অভিযোগ ভোক্তা অধিকার

‘প্রজেক্ট হিলশা’র শৌচালয় ব্যবহার করে হাত ধোয় না কর্মচারীরা, ময়লা ফেলে রাস্তায় ।এছাড়া প্রজেক্ট হিলশার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *