Breaking News
Home / অর্থনীতি / চসিক নির্বাচনে বেড়ে চলেছে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ।

চসিক নির্বাচনে বেড়ে চলেছে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ।

 

চসিক নির্বাচন মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিমের অভিযোগের সংখ্যা ১৭ টি।বিএনপির মেয়র প্রার্থী ড.শাহদাত হোসের বিরুদ্ধে। অভিযোগে বলা হয়েছে, পশ্চিম বাকলিয়ার ডিসি রোড এলাকায় নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় লিফলেট বিতরণে বাধা, মাইক ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি ভেঙে ফেলা হয়েছে। তাঁর পক্ষে নগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক হাসান মাহমুদ শমসের এ অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এর আগে বিএনপি প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনও তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ দায়ের করেছেন। দুই মেয়র প্রার্থী ছাড়াও কাউন্সিলর প্রার্থীরাও পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করে আসছেন।

অভিযোগ পর্যালোচনা করে দেখা যায়, পোস্টার ছেঁড়া, হামলা, ভাঙচুরের অভিযোগ বেশি। গতকাল নির্বাচন কমিশনে ছয়টি অভিযোগ জমা পড়েছে। এ নিয়ে অভিযোগের সংখ্যা দাঁড়াল ১৭টি।

রিটার্নিং অফিসার মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের কাছে পাঠানো হয়েছে।

রিটার্নিং অফিসার সূত্র জানায়, ৭নং পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী রুমকি সেনগুপ্তের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আনজুমান আরা বেগম। অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, রাতের আঁধারে পোস্টার ও ব্যানার ছিঁড়ে একই স্থানে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর পোস্টার ও ব্যানার লাগানো হচ্ছে।

৫ নম্বর মোহরা ওয়ার্ডের আ. লীগ দলীয় প্রার্থী কাজী নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন বিএনপি প্রার্থী মোহাম্মদ আজম। তাঁর অভিযোগ, রাতের অন্ধকারে পোস্টার ও ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। এবং ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী।

১২ নম্বর সরাইপাড়ায় বিদ্রোহী প্রার্থী সাবের আহাম্মদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী মো. নুরুল আমিন। তিনি সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনী আচারণ বিধিমালা ২০১৬ এর ৮ (১) লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন।

১৫ নম্বর বাগমনিরাম ওয়ার্ডের মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন চৌধুরী সায়েফুদ্দীন রাশেদ সিদ্দীকি। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, নির্বাচনী এলাকায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকেরা অস্ত্র ও লাঠি দিয়ে অতর্কিত হামলা করে তার কর্মীদের আঘাত করে। নির্বাচনী প্রচারনায় বাধা সৃষ্টি করা হচ্ছে।

Check Also

ঢাকা চট্টগ্রাম ও সিলেট মহাসড়ক হবে স্বস্তির সড়ক – ওসি মনিরুজ্জামান

যানজট নিরসনের যাত্রীদের জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক হবে স্বস্তির সড়ক হবে বলে জানান কাঁচপুর হাইওয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *