Breaking News
Home / সারাদেশ / চরফ্যাশনে ভোটার তালিকায় ৩ রোহিঙ্গা শনাক্ত

চরফ্যাশনে ভোটার তালিকায় ৩ রোহিঙ্গা শনাক্ত

ভোলা জেলা প্রতিনিধি : মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের তিন ভোটার হিসেবে অর্ন্তভূক্ত করেছে চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাচন অফিস। আসন্ন ইউপির নির্বাচনে এওয়াজপুর ৫নং ওয়ার্ডের ইউপির সদস্য প্রার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্রে সে জানে না কিভাবে ভোটার একই ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা অভিযোগ রয়েছে। নির্বাচনের রিটানিং অফিসার তার মানোয়নপত্র বাতিল করেছেন।

তথ্য সূত্রে জানা গেছে, চরফ্যাশন উপজেলার ৩টি ইউনিয়ন থেকে জন্মসনদ ও নাগরিক সনদ নিয়ে ৩ রোহিঙ্গা জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) নিবন্ধিত হয়েছে। জাতীয় পরিচয়পত্রের অন্তর্ভুক্তিরা হলেন, মুজিব নগর ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ড থেকে মো. সজিব (১৮) পিতা আঃ সাত্তার ও মাতা বকুল বেগম। চরমাদ্রাজ ইউনিয়ন ৪নং ওয়ার্ড থেকে মো.রাসেল (২২) পিতা তোফায়েল আহেম্মদ মাতা রাশিদা বেগম ও নজরুল নগর ইউনিয়ন ৬নং ওয়ার্ড থেকে মো. জুয়েল (২৫) পিতা মো. রতন মাতা আয়শা বেগম নামের ৩ রোহিঙ্গা ব্যক্তি জন্মসনদ ও নাগরিক সনদ দিয়ে এ পরিচয়পত্র সংগ্রহ করেছে বলে তথ্য সূত্রে জানা গেছে।

এ রোহিঙ্গা ব্যক্তিরা নিজেদের প্রকৃত পরিচয় গোপন রেখে দালাল চক্রের মাধ্যমে ভূয়া কাগজপত্র তৈরী করে স্থানীয় তথ্য সংগ্রহকারীর মাধ্যমে ভোটার তালিকায় তাদের নাম অর্ন্তভূক্ত করেছে বলে একাধীক সূত্রে জানা গেছে। ৩ রোহিঙ্গার এনআইডি নাম্বারগুলো হলো যথাক্রমে ৪৬৫৯৯৫১১৪১, ৪২০৩১৪৭০৪৮ও ১৫০৯৬৬৯৯১৫

চরমাদ্রাজ ৪নং ওয়ার্ড হামিদপুরের জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য সংগ্রহকারী স্কুল শিক্ষক শাহ মো. আবদুল মতিন বলেন, রাসেল নামের যে রহিঙ্গা ব্যক্তির কথা বলা হচ্ছে তার বিষয়ে আমার কিছু মনে নেই।

চরমাদ্রাজের হামিদপুর ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ভোটার শনাক্তকারী সুপার ভাইজার জাকির হোসেন মেম্বার বলেন, নাম ও ঠিকানা সঠিক রয়েছে তবে জন্ম নিবন্ধনে যে সাক্ষর রয়েছে তা আমি দেইনি।

মুজিব নগর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াদুদ মিয়া বলেন, রোহিঙ্গা ভোটার সজিব পিতা আঃ সাত্তার মাতা বকুল বেগম নামের ব্যক্তি আমার জানামতে মুজিবনগর ১নং ওয়ার্ডে নেই।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, প্রাথমিকভাবে ৩জন রোহিঙ্গা ভোটারকে শনাক্ত করা হয়েছে। যাচাই বাছাই শেষে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে চরফ্যাশন উপজেলার এওয়াজপুরে ইউপি সদস্য পদ প্রার্থী সবুজ মহাজনের অজান্তে জাতীয় পরিচয়পত্র এক ওয়ার্ড থেকে অন্য ওয়ার্ডে স্থানান্তরের অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার (২১মার্চ) সকালে ৫নং ওয়ার্ডের সাধারন ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী সবুজ মহাজন লিখিত অভিযোগ করে বলেন, আমি ৫নং ওয়ার্ডের ভোটার এবং এই ওয়ার্ডে আমার পিতাও ইউপি সদস্য ছিলেন এবং গত ইউপি নির্বাচনেও আমি ইউপি সদস্য পদে নির্বাচন করেছি। আসন্ন ১১এপ্রিলে অনুষ্ঠিতব্য এওয়াজপুর ইউপি নির্বাচনে ৫নং ওয়ার্ড থেকে আমি সাধারণ সদস্য পদে নিজের প্রার্থীতা ঘোষণা করে মনোনয়ন পত্র দাখিল করি।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রতিপক্ষ গ্রুপ আমার সাক্ষর জালিয়াতি করে নির্বচন অফিসে একটি ভূয়া আবেদন করে আমার পরিচয়পত্র এক ওয়ার্ড থেকে অন্য ওয়ার্ডে স্থান্তর করেছে। আমার মনোনয়পত্র বাতিল করেছে আমি আপিল করেছি।

Check Also

সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে আদমজী ইপিজেডে বকেয়া পাওনার দাবিতে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের সঙ্গে শ্রমিকদের দফায় দফায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *