Breaking News
Home / প্রধান সংবাদ / খুবির এক শিক্ষককে বরখাস্ত ও দু’জনকে অপসারণের সিদ্ধান্ত

খুবির এক শিক্ষককে বরখাস্ত ও দু’জনকে অপসারণের সিদ্ধান্ত

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

অবাধ্যতা, গুরুতর অসদাচারণ, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উস্কানি প্রদানসহ একাধিক অভিযোগে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) এক শিক্ষককে বরখাস্ত ও দুইজন শিক্ষককে অপসারণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

আজ (শনিবার) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২১২তম সিন্ডিকেট সভায় এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়। বরখাস্ত হওয়া শিক্ষক হলেন বাংলা ডিসিপ্লিনের সহকারী অধ্যাপক মো. আবুল ফজল এবং অপসারণ হওয়া শিক্ষকদ্বয় হলেন, ইতিহাস ও সভ্যতা ডিসিপ্লিনের প্রভাষক হৈমন্তী শুক্লা কাবেরী ও বাংলা ডিসিপ্লিনের প্রভাষক শাকিলা আলম।

গত ১৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত পূর্ববর্তী ২১১তম সিন্ডিকেট সভায় উক্ত তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে যে শাস্তির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিলো তা আজ সিন্ডিকেটের ২১২তম সভায় চূড়ান্ত ও বহাল রাখা হয়। নিয়মানুযায়ী আত্মপক্ষ সমার্থনের সুযোগ প্রদানে পত্র দেওয়া হলেও তিনজন শিক্ষক তাদের জবাবে ক্ষমা বা দুঃখ প্রকাশ করেননি।

উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা, সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মুনতাসীর মামুন, প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা, প্রফেসর ড. মোঃ মাহবুবুর রহমানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ক্যাটাগরির অন্যান্য সকল সদস্য সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সিন্ডিকেটের অপর দুই সদস্য খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য বর্তমানে ইউজিসির সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর ও খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ ইসমাইল হোসেন এনডিসি অনলাইনে যুক্ত থেকে এ সভায় অংশগ্রহণ করেন। সভায় নতুন সদস্য প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-২ ওয়াহিদা আক্তার, প্রফেসর ড. মোঃ মনিরুল ইসলাম, প্রফেসর এ কে ফজলুল হক, প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুল জব্বার, ড. নিহার রঞ্জন সিংহকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রধান ফটক স্থাপনের নকশাও গৃহীত হয়।

এ ছাড়া উপাচার্য ফিতা কেটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে একটি আর্কাইভের উদ্বোধন করেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য, ট্রেজারার, সিন্ডিকেট সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

ঢাকা চট্টগ্রাম ও সিলেট মহাসড়ক হবে স্বস্তির সড়ক – ওসি মনিরুজ্জামান

যানজট নিরসনের যাত্রীদের জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক হবে স্বস্তির সড়ক হবে বলে জানান কাঁচপুর হাইওয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *