Breaking News
Home / আইন ও আদালত / কার্গো জাহাজটির রঙ পরিবর্তন করেও রেহাই পায়নি অবশেষে আটক

কার্গো জাহাজটির রঙ পরিবর্তন করেও রেহাই পায়নি অবশেষে আটক

নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যায় যাত্রীবাহী লঞ্চডুবিতে ৩৪ জনের নিহতের ঘটনায় ঘাতক এসকেএল-৩ নামক কার্গো জাহাজটি সহ ১৪ নাবিকে ৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া এলাকা থেকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। জাহাজটি বাগেরহাট-২ আসনে আওয়ামী লীগের সাংসদ শেখ সারহান নাসের তন্ময়ের মালিকানাধীন এসকে লজিস্টিকস নামক প্রতিষ্ঠানের।

নারায়ণগঞ্জের ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, লঞ্চটিকে ধাক্কা দিয়ে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া কোস্টগার্ড স্টেশনের কাছে গিয়ে নোঙ্গর করেছিল এসকেএল-৩ নামের জাহাজটি। এই সময়ের মধ্যে তারা জাহাজটির রঙ পরিবর্তন করে ফেলেছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে কোস্ট গার্ড সদস্যরা তাদের আটক করে। জাহাজে থাকা আটককৃতরা লঞ্চটিকে ধাক্কা দেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। জাহাজ ও আটক স্টাফদের নারায়ণগঞ্জ নৌ থানার কাছে হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ।

প্রসঙ্গত গতকাল ৪ এপ্রিল রোববার সন্ধ্যা পাঁচটা ছাপ্পান্ন মিনিটে মুন্সিগঞ্জের উদ্দেশে এম এল সাবিত আল হাসান নামে যাত্রীবাহী লঞ্চটি নারায়ণগঞ্জ লঞ্চ টার্মিনাল ছেড়ে যায় । তখনও কালবৈশাখীর ঝড় শুরু হয়নি। লঞ্চটির ধারণক্ষমতা ৬৮ জন হলেও সেদিন তারও কম যাত্রী নিয়ে রওয়ানা হয়েছিল । সোয়া ছয়টার দিকে মদনগঞ্জ-সৈয়দপুর এলাকায় শীতলক্ষ্যায় নির্মাণাধীন সেতুর অদূরে এসকেএল-৩ (রেজিস্ট্রেশন নং: ০১-২৬৪৩) নামে কার্গো জাহাজ পেছন থেকে ধাক্কা দেয় যাত্রীবাহী লঞ্চটিকে। সে সময় প্রত্যক্ষদর্শীদের ধারণ করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, লঞ্চটিকে ঠেলে অন্তত ২০০ মিটার দূরে নিয়ে গিয়ে ডুবিয়ে দেয় কার্গোজাহাজটি। এর মধ্যেই নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়েন কয়েকজন। প্রত্যক্ষদর্শী ও জেলা প্রশাসনের দেয়া তথ্যমতে, সাঁতরে ১৫ থেকে ২০জন তীরে উঠতে পারলেও নিখোঁজ ছিল ৩৬জন। পরে রোববার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ৩৪জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। যার মধ্যে এখনও নিখোঁজ রয়েছে দুইজন। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসন, বিআইডব্লিউটিএ ও নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় পৃথক তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। তদন্ত কমিটিকে ৭ কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। এ ঘটনায় ৬ এপ্রিল রাতে বন্দর থানায় অজ্ঞাত আসামি করে বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর কর্তৃপক্ষের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক বাবু লাল বৈদ্য বাদী হয়ে বন্দর থানায় একটি মামলা করেন।।

 

 

Check Also

ঢাকা চট্টগ্রাম ও সিলেট মহাসড়ক হবে স্বস্তির সড়ক – ওসি মনিরুজ্জামান

যানজট নিরসনের যাত্রীদের জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক হবে স্বস্তির সড়ক হবে বলে জানান কাঁচপুর হাইওয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *